দশ বছর পর ‘পেন্টাগন’-এ পুরনো চার সদস্যের প্রত্যাবর্তন

দশ বছর পর আমেরকিার স্বাধীনতা দিবসে আমেরিকান দূতাবাসের আয়োজনে আমেরিকান স্কুলে পার্ফমেন্সের মাধ্যমে ‘পেন্টাগন’ দলে ফিরেছেন পুরনো চার সদস্য। তারা হলেন মোর্শেদ খান, শেখ মনিরুল ইসলাম টিপু, আলিফ আলাউদ্দিন ও কাজী ফয়সাল আহমেদ। অনুষ্ঠানে নিজেদের একাধিক বাংলা গানের পাশাপাশি বিভিন্ন ভাষার গান করে পেন্টাগণ। দলের বর্তমান অন্য সদস্যরা হলেন আলী সুমন (ভোকাল ও রিদম গীটার), মিনহাজ আহমেদ মৃদুল (ড্রাম), জামিল হোসেন সাজু(কিবোর্ড)এবং নাফিউস সালাম ইয়ানি(লীড গীটার)। মজার তথ্য হলো, দলটির সর্বকনিষ্ঠ সদস্য ইয়ানি দলটির প্রধান

দলে পুরনো চার সদস্যের প্রত্যাবর্তন ও আমেরিকান জাতীয় দিবসে পার্ফমেন্স প্রসঙ্গে আলী সুমন বলেন, এটা পাখির নীড়ে ফেরার মত অনূভূতি। নষ্টালজিয়ায় ডুবে যাওয়ার মতো বিষয়। মূলত আলিফ এবং তাগাদাতেই এই প্রত্যাবর্তন পর্ব আরো দ্রুত হয়েছে। একটা বিষয় হলো আমাদের প্রেম এবং প্যাশন সংগীত। নিছক অর্থ উপার্জনের পথ নয়। নিয়মিতভাবে এই লাইন আপে পার্ফর্ম করবো আমরা। নতুন কিছু গান তৈরী হয়েছে সেগুলোর ভিডিও চলতি বছরেই অবমুক্ত করবো

দলে ফেরা প্রসঙ্গে আলিফ আলাউদ্দিন বলেন, পেন্টাগন আমার নিজের ঘর। এখানে ফিরে আসা বা চলে যাওয়া বলে কিছু নেই। সবসময়ই ছিলাম। কখনো শারীরিক উপস্থিতি ছিলো আবার কখনো বা মানসিক। এখন কেবল গান করতে চাই। শুধু গান করতে চাই।’ ‘ওয়ারফেইজ’ খ্যাত টিপু বলেন, মিউজিক মানে সউল ট্র্যাভেল। সৃজন। কিছু মান টুকরো অভিমান। চলে যাওয়া আবার প্রত্যাবর্তন।’

১৯৯৩ সালের ১৩ অক্টোবর পাঁচ সদস্য মিলে তৈরী করেন পেন্টাগণ। সদস্যরা হলেন আলী সুমন (ভোকাল ও রিদম গীটার), শওকত আলী ইমন (কিবোর্ড), রঞ্জন (ড্রামস ও ভোকাল), মশিউর রহমান শেলী (গীটার) এবং জাভেদ আহমেদ বাবু (বেইজ গীটার। ৯৭ সালে দল ছাড়েন ইমন। তারপর দলে আসেন আনান কিবোর্ডে এবং টিপু (পর্কাশন্স)।বনানীর সাংগ্রিলাতে প্রথম শো করে দলটি। শুরুতে তারা বাংলা ইংরেজী, ল্যাটিন/স্প্যানিশ, আরবী, জামাইকান এবং পর্তুগীজ গানের কভার সং করত। ২০০২ সালে একতার মিউজিক থেকে বের হয় দলটির প্রথম অ্যালবাম ‘সেই আমি’। এরপর দল ছাড়েন আনান, টিপু, মাহবুব, বাবু এবং শেলী। এরপর থেকে যাওয়া আসার মধ্যে ছিলেন মোরশেদ, জীবন অনিতা, রাজন, মাসুম ফয়সাল, আলিফ, অমি, মেহেদী, শামীম এবং তাহসীর।২০০৯ সালে প্রকাশ হয় দলটির সর্বশেষ অ্যালবাম ‘এইট ও ক্লক’ জি সিরিজের ব্যানারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *