মধ্য নভেম্বরে ‘মেকআপ’র রহস্য উন্মোচন

‘লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন!’ দিয়ে দিনের শুরু আর ‘ওকে, কাট’ দিয়ে শেষ— এ হলো একজন চিত্রনায়কের নিত্যদিনকার রুটিন। শুটিংয়ের লাইটের আলোর ঝলকানিতে হারিয়ে যায় তাদের ব্যক্তিগত ভালোবাসা, সুখ, দুঃখ, হাসি-কান্নার গল্পগুলো। কিংবা তারা লুকিয়ে রাখেন। কারণ অনেক কষ্টে পাওয়া নাম, খ্যাতি, যশ এসব হারিয়ে যাওয়ার ভয়। বয়স বাড়ে তবুও হতে চান ২৫ বছর বয়সী যুবক। মেকআপ দিয়ে সব সত্যকে লুকাতে চান বর্ষীয়ান নায়ক।

এমনই গল্পে অনন্য মামুন নির্মাণ করেছেন ‘মেকআপ’। রবিবার সন্ধ্যায় পান্থপথের রেস্টুরেন্ট ‘কফি বাজ’-এ হয়ে গেলো সিনেমাটি নিয়ে এক কফি আড্ডা। এতে উপস্থিত ছিলেন সিনেমাটির পরিচালক অনন্য মামুন, তারিক আনাম খান, নবাগত নায়িকা নিপা আহমেদ রিয়েলি, সাইফ চন্দন, শিশুশিল্পী নমনী প্রমুখ।

সিনেমার নামকরণ নিয়ে অনন্য মামুন বলেন, ‘চলচ্চিত্রের অনেক শিল্পীই শুধুমাত্র ক্যারিয়ারের কথা ভেবে গোপন করে তাদের সংসারসহ জীবনের অনেক সত্য। কিন্তু দিন শেষে সবাইকে ফিরে যেতে হয় তার আপন ঠিকানায়, সেখানে মেকআপের কোন আবরণ থাকে না, থাকে শুধু সত্য। মেকআপ দিয়ে সব লুকানো গেলেও কষ্ট আর আবেগ লুকানো যায় না।’

‘মেকআপ’-এর মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান। সুপারস্টার আবরাজ খান তার নাম। তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর প্রায় সকল সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির সুপারস্টারদের গল্পই এমন। অথচ সত্যকে লুকিয়ে কেউ কোন দিন জীবনে সুখী হতে পারে না।’

একজন সাধারণ মেয়ে থেকে জনপ্রিয় নায়িকা উঠেন রিয়েলি। ‘রঙ্গিন পর্দায় নিজেকে দেখার শখ অনেক মানুষের। নায়িকা হিসেবে সবাই তাকে চিনুক, এটা অনেকে চাইলেও হয়ে উঠে না। এরজন্য দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। অনেক টিকে থাকে, অনেকেই থাকে না। আমার চরিত্রে এ বিষয়গুলোই উঠে এসেছে’— বললেন রিয়েলি।

মেকআপে একজন ‘স্ট্রাগলিং হিরো’র চরিত্রে অভিনয় করেছেন রোশান। তিনি বিএফডিসিতে ‘জিন’ সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত থাকায় আসতে পারেননি। আরও আছেন কাজী উজ্জ্বল ও কলকাতার পায়েল মুখার্জী ও বিশ্বজিৎ মুখার্জী।

বর্তমানে এর সত্তর শতাংশ শুটিং শেষ হয়েছে। শুটিং হয়েছে ভারতের রামুজি ফিল্ম সিটি, বাংলাদেশের মানিকগঞ্জ ও ঢাকায়। বাকি শুটিং খুব শিগগিরই শেষ হবে।

প্রাথমিকভাবে পরিচালকের ইচ্ছে ‘মেকআপ’ ১৫ নভেম্বর মুক্তি দেওয়া। প্রথম অবস্থায় বাংলাদেশ ও ভারতে এক যোগে মুক্তি দেওয়া হবে। এরপর বিশ্বব্যাপী মুক্তি দেওয়া হবে। এছাড়া ভারতীয় একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মেও সিনেমাটি মুক্তি দেওয়া হবে।

ত্রিশ শতাংশ শুটিং বাকি থাকা অবস্থায় কীভাবে এক মাস পরে মুক্তি দিবেন? উত্তরে মামুন বলেন, ‘শুটিং চলাকালীন সময়ে আমরা অনলাইন এডিটিং করেছি। যার কারণে যতটুকু শুটিং হয়েছে ততটুকুর কাজ গুছানো আছে। মুক্তি নিয়ে কোন সমস্যা হবে না।’

নতুন প্রযোজনা সংস্থা সেলেব্রিটি প্রোডাকশন ‘মেকআপ’ প্রযোজনা করছে। তারা বছরে তিনটি করে সিনেমা প্রযোজনা করবে বলে আড্ডায় জানানো হয়।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *